সংক্ষিপ্ত বিবরণ

জাতীয় নাট্যশালা (জাতীয় নাট্যশালার মূল থিয়েটার হলটি প্রধানত নাটক মঞ্চায়নের জন্য ব্যবহৃত হবে।)

১. ২৪ মিঃ/১৩.৫ মিঃ আয়তন বিশিষ্ট প্রসেনিয়াম স্টেজ।
২. ২৪ মিঃ/১২ মিঃ আয়তনের ১৫ আসন বিশিষ্ট ব্যাক স্টেজ।
৩. ৬ মিঃ/২৪ মিঃ আয়তনের ২৫ আসন বিশিষ্ট রূপসজ্জা কক্ষ।
৪. দর্শক লাউঞ্জ।
৫. টিকেট ঘর।
৬. অপরিবর্তনযোগ্য ৭৩৮টি দর্শক আসন।
৭. শীতাতপ নিয়ন্ত্রণব্যবস্থা।
৮. আধুনিক শব্দ ও আলোক ব্যবস্থা।
৯. অগ্নিনির্বাপক ব্যবস্থা।

পর্যবেক্ষন

পরিচালনা

অবস্থান

add a google map to your website

১. উদ্দেশ্য :

১.১. নিম্নোক্ত উদ্দেশ্য অর্জনের লক্ষ্যে বাংলাদেশ শিল্পকলা একাডেমি জাতীয় নাট্যশালা নির্মাণের উদ্যোগ নেয়া হয়।

১.১.১. নাট্যচর্চার সার্বিক উৎসাহ, উন্নয়ন, প্রসার ও বিকাশ।
১.১.২. যথাযথভাবে নাট্যচর্চার জন্য ক্ষেত্র প্রস্তুতকরণ।
১.১.৩. মঞ্চায়ন উপযোগী যথার্থ থিয়েটার হল নির্মাণের মাধ্যমে নাট্যকর্মীদের জন্য বস্তুগত সুযোগ সুবিধা নিশ্চিতকরণ।
১.১.৪. বিভিন্ন নাট্যগোষ্ঠী ও নাট্যকর্মীদেরকে নাট্যচর্চায় অধিকতর উৎসাহ প্রদান।
১.১.৫. নাট্যশিল্পকে ক্রমান্বয়ে জীবিকাশ্রয়ী পেশা হিসাবে প্রতিষ্ঠাকরণসহ বাংলাদেশের নাট্য প্রযোজনাসমুহকে আর্ন্তজাতিক মানে উন্নীতকরণ।
১.১.৬. বিশ্ববিদ্যালয়সহ সরকারী-বেসরকারী পর্যায়ের নাট্যকলার ছাত্র-ছাত্রীদের লব্ধ জ্ঞান, অভিজ্ঞতা প্রয়োগের সুযোগ প্রদান।
১.১.৭. দেশের সকল নাট্যকর্মী এবং তাঁদের নাট্যকর্মের জন্য জাতীয় পর্যায়ে নাটক বিষয়ক পারস্পরিক মতামত বিনিময়সহ একটি মিলনকেন্দ্র গড়ে তোলা।
১.১.৮. দেশের নাট্যামোদী এবং নাট্যকর্মীদের দীর্ঘদিনের স্বপ্ন বাস্তবায়নের মাধ্যমে নাট্যশিল্পের সার্বিক উৎকর্ষসাধন।
১.১.৯. আধুনিক সুযোগ সুবিধা সম্বলিত একটি জাতীয় নাট্যশালা নির্মাণের মাধ্যমে নাট্যকর্মীদের দীর্ঘদিনের প্রত্যাশা পূরণ।

২. নীতিমালা:

২.১. জাতীয় নাট্যশালার মূল থিয়েটার হলটি প্রধানত নাটক মঞ্চায়নের জন্য ব্যবহৃত হবে।
২.২. রাষ্ট্রীয়/ সরকারী অনুষ্ঠানের জন্য এই হল অগ্রাধিকার ভিত্তিতে বরাদ্দ পাবে।
২.৩. মূল থিয়েটার হল বলতে শুধুমাত্র জাতীয় নাট্যশালার ৭৫০ আসন বিশিষ্ট থিয়েটার হলটিকেই বোঝাবে এবং এতে জাতীয় নাট্যশালার এক্সপেরিমেন্টাল থিয়েটার হল কিংবা একাডেমি বা নাট্যশালার প্রাঙ্গণ বা অন্য কোন কক্ষ, স্থান বা মিলনায়তন অন্তর্ভুক্ত হবেনা।
২.৪. মূল থিয়েটার হলে শুধুমাত্র প্রসেনিয়াম আঙ্গিকে নাটক মঞ্চায়নের সুযোগ থাকবে।
২.৫. বিভাগীয় পরিচালকের সুপারিশের ভিত্তিতে মহাপরিচালক মহোদয় হল বরাদ্দের বিষয়ে চূড়ান্ত অনুমোদন প্রদান করবেন।
২.৬. নাট্যদল, নাট্যসংগঠন মূল থিয়েটার হল নির্ধারিত ভাড়ায় হল ব্যবহারের সুযোগ পাবে। তবে একাডেমি কোন নাট্যানুষ্ঠান, নাট্যোৎসব, আবৃত্তি ও অন্যান্য নাট্য সংক্রান্ত অনুষ্ঠান আয়োজনের জন্য হল ব্যবহারের সর্বাধিক গুরুত্ব পাবে। একাডেমি জন্য নির্ধারিত কোন দিনে অনুষ্ঠান আয়োজন সম্ভব না হলে সেদিন অন্য কোন প্রতিষ্ঠান (নাট্য সংক্রান্ত) ভাড়া নিতে পারবে।
২.৭.একাডেমি জরুরী কোন অনুষ্ঠান বা সংস্কৃতি মন্ত্রণালয় বা রাষ্ট্রীয় কোন অনুষ্ঠান আয়োজন জরুরী হয়ে পড়লে পূর্বে দেয়া হলের বরাদ্দ বাতিল করা যাবে।
২.৮. ভাড়া গ্রহণকারী প্রতিষ্ঠানকে সর্বোচ্চ ১০ (দশ) টি/ ১ম সারিতে ৫ (পাঁচ) টি, ২য় সারিতে ০৫ (পাঁচ) টি আমন্ত্রণপত্র একাডেমীকে প্রদান করতে হবে।
২.৯. বন্ধু প্রতিম দেশের সাংস্কৃতিক প্রতিনিধিদের অনুষ্ঠানের বিষয়ে অগ্রাধিকার দেয়া হবে।
২.১০ রাষ্ট্রীয় ভাবমূর্তি/মুক্তিযুদ্ধের চেতনার পরিপন্থী, ধর্মীয় অনুভূতিতে আঘাত সম্বলিত এবং অপসংস্কৃতিদুষ্ট কোন নাটক বা সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠান এই হলে মঞ্চস্থ করার জন্য বিবেচিত হবেনা।
২.১১ সস্তা নিম্নমানের বিনোদনমূলক নাটক এই হলে মঞ্চস্থ করা যাবে না।
২.১২ নতুন প্রযোজনার ক্ষেত্রে আবেদনকৃত নাট্যদল সাধারণভাবে সর্বোচ্চ টানা ০৭ (সাত) দিন মূল থিয়েটার হল ব্যবহারের সুযোগ পাবে। বিশেষ বিবেচনায় সময় বৃদ্ধি করা যেতে পারে।
২.১৩ নাট্যোৎসব আয়োজনের জন্য কোন নাট্যদল সাধারণভাবে সর্বোচ্চ দশ দিন হল ব্যবহারের সুযোগ পাবে।
২.১৪ থিয়েটার হল বরাদ্দের আবেদনের সঙ্গে আবেদনকারী নাট্যদল বা সংগঠন তাদের মঞ্চায়িত নাটকের বা অনুষ্ঠানের এক কপি পান্ডুলিপি জাতীয় নাট্যশালার আর্কাইভে সংরক্ষণের জন্য জমা দেবেন।
২.১৫ ভাড়া গ্রহণকারী সংগঠন সকালের পালার নাটক মঞ্চায়নের জন্য সকাল ৮টা থেকে দুপুর ২টা এবং সন্ধ্যায় নাটক মঞ্চায়নের জন্য বিকেল ৩টা থেকে রাত ১০টা পর্যন্ত এই হল ব্যবহার করতে পারবে। তবে জরুরী প্রয়োজনে বিশেষ ক্ষেত্রে রাতের পালার নাটক থাকবেনা, সেদিন প্রয়োজনে বিকালের পালায় নাটক মঞ্চায়নকারী সংগঠনের অনুকূলে বিশেষ বিবেচনায় দুপুর ১২টা থেকে হল ব্যবহারের অনুমতি দেয়া যেতে পারে।
২.১৬ হল বরাদ্দের আবেদন মঞ্জুর করা বা না করা এবং কোন কারণ দর্শানো ছাড়া যে কোন সময় প্রদত্ত অনুমতি বাতিল করার সম্পূর্ণ অধিকার শিল্পকলা একাডেমি সংরক্ষণ করবে।
২.১৭ মূল থিয়েটার হলে নাটক মঞ্চায়নের জন্য নিম্নোক্ত সুবিধাদি লভ্য হবে ঃ

২.১৭.১. ২৪ মিঃ/১৩.৫ মিঃ আয়তন বিশিষ্ট প্রসেনিয়াম স্টেজ।
২.১৭.২. ২৪ মিঃ/১২ মিঃ আয়তনের ১৫ আসন বিশিষ্ট ব্যাক স্টেজ।
২.১৭.৩. ৬ মিঃ/২৪ মিঃ আয়তনের ২৫ আসন বিশিষ্ট রূপসজ্জা কক্ষ।
২.১৭.৪. দর্শক লাউঞ্জ।
২.১৭.৫. টিকেট ঘর
২.১৭.৬. অপরিবর্তনযোগ্য ৭৩৮টি দর্শক আসন
২.১৭.৭. শীতাতপ নিয়ন্ত্রণব্যবস্থা।
২.১৭.৮. আধুনিক শব্দ ও আলোক ব্যবস্থা।
২.১৭.০৯ অগ্নিনির্বাপক ব্যবস্থা।

২.১৮ লভ্য সুবিধাদির মধ্যে শীতাতপ নিয়ন্ত্রণ ব্যবস্থা, শব্দ ও আলোক ব্যবস্থা, পর্দা সামগ্রী ও অগ্নি নির্বাপক ব্যবস্থাসহ কারিগরী সকল বিষয়াদি হল ব্যবহারকারী সংগঠনের দায়িত্বপ্রাপ্ত কারিগরী ব্যক্তির চাহিদা অনুসারে একাডেমি সংশ্লিষ্ট জনবলের তত্ত্বাবধানে নিয়ন্ত্রিত ও পরিচালিত হবে।
২.১৯ হল ব্যবহারকারী সংগঠনকে মূল থিয়েটার হলে স্থাপিত শব্দ ও আলোক সরঞ্জামাদির যথাযথ ব্যবহার করেই তাঁদের নাটক বা অনুষ্ঠান পরিবেশন করতে হবে। কোন প্রকার শব্দ বা আলোক সরঞ্জামাদি বাইরে থেকে ভাড়া করে এনে হলে ব্যবহার করা যাবেনা। দলের চাহিদা মোতাবেক অতি প্রয়োজনীয় যন্ত্রপাতি সরঞ্জাম না থাকলে বিভাগীয় প্রধানের অনুমতি নিয়ে হলে এনে ব্যবহার করা যাবে।
২.২০ হল বরাদ্দপ্রাপ্ত সংগঠনকে হল ব্যবহারের একদিন পূর্বেই অনুষ্ঠানের ধরন ও প্রয়োজনীয় কারিগরী চাহিদা সম্পর্কে হলের সংশ্লিষ্ট কর্মকর্তাকে অবহিত করতে হবে।
২.২১ মূল থিয়েটার হলে, অনুষ্ঠান শুরুর নির্ধারিত সময়ের ৩০ (ত্রিশ) মিনিট পূর্বে শীতাতপ নিয়ন্ত্রণ ব্যবস্থা চালু করা হবে।
২.২২ নাটক বা অনুষ্ঠান শুরুর কমপক্ষে ৩০ (ত্রিশ) মিনিট পূর্বে আলোক ও শব্দ নিয়ন্ত্রণ ব্যবস্থার কাজ সমাপ্ত করতে হবে। এরপর কোন অবস্থাতেই আলোক ও শব্দ নিয়ন্ত্রণ ব্যবস্থাতে সংযোজন করা যাবেনা।
২.২৩ সকালের পালার জন্য সকাল ৯টা ও সন্ধ্যার পালার জন্য বিকেল ৪টায় রূপসজ্জা কক্ষ খোলা হবে।
২.২৪ একাডেমি নিয়ন্ত্রণ বহির্ভূত কারণে বিদ্যুৎ বিভ্রাট, শীতাতপ নিয়ন্ত্রণ ব্যবস্থা বা আলোক ও শব্দ ব্যবস্থার কোন সমস্যা দেখা দিলে একাডেমি কর্তৃপক্ষ দায়ী থাকবে না।
২.২৫ বরাদ্দপ্রাপ্ত সংগঠন, তাঁদের নাট্য প্রযোজনা বা অনুষ্ঠানের সেট ও প্রপ্স কোনভাবেই পূর্বের দিন রাত্রে হলে আনতে পারবে না। বরাদ্দপ্রাপ্ত তারিখের বরাদ্দপ্রাপ্ত পালার নির্ধারিত সময়েই সেট ও প্রপ্স হলে আনতে ও লাগাতে হবে।
২.২৬ হল বরাদ্দপ্রাপ্ত সংগঠনকে নাটক মঞ্চায়ন বা অনুষ্ঠান শেষ হবার সাথে সাথেই, সঙ্গে আনা সেট ও প্রপ্সসহ সকল মালামাল হল থেকে সরিয়ে নিয়ে যেতে হবে। কোন অবস্থাতেই এই সব দ্রব্যাদি হলের ভিতর বা একাডেমি কোন স্থানে রাখতে পারবে না।
২.২৭ হল ব্যবহারকারী সংগঠন, আহারের জন্য নির্দিষ্ট ক্যাফেটরিয়া ব্যতীত থিয়েটার হল, জাতীয় নাট্যশালা বা একাডেমি কোন হল ব্যবহার করতে পারবেনা। জাতীয় নাট্যশালা ভবনে মাদকদ্রব্য সেবন এবং ধূমপান সম্পূর্ণ নিষিদ্ধ থাকবে।
২.২৮ হল ব্যবহারকারী সংগঠন কর্তৃক মঞ্চায়িত নাটক বা সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠান যদি অসামাজিক, অশালীন কিংবা আপত্তিকর বা উত্তেজনাকর বলে একাডেমি নিকট বিবেচিত হয়, তাহলে একাডেমি কর্তৃপক্ষ যে কোন সময় তাৎক্ষণিকভাবে নাটক মঞ্চায়ন বা অনুষ্ঠান বন্ধসহ হল ব্যবহারের অনুমতি বাতিল করতে পারবে এবং এরূপ ক্ষেত্রে প্রয়োজনে হল ব্যবহারকারী সংগঠনের বিরুদ্ধে আইনানুগ ব্যবস্থা করা যাবে এবং ভবিষ্যতে উক্ত সংগঠন এই হল ব্যবহারের অযোগ্য বলে বিবেচিত হবে।
২.২৯ হল ব্যবহারকারী সংগঠন কর্তৃক হল ব্যবহারকালে মূল থিয়েটার হল, জাতীয় নাট্যশালা বা একাডেমি কোন কিছু বা কোন অংশের ক্ষতিসাধিত হলে, ভাড়াগ্রহীতা সংগঠন একাডেমি কর্তৃক নিধারিত সময়সীমার মধ্যে সে ক্ষতি পূরণ করতে বাধ্য থাকবে। অন্যথায় সংশ্লিষ্ট সংগঠনের বিরুদ্ধে একাডেমি কর্তৃপক্ষ আইনানুগ ব্যবস্থা গ্রহণ করতে পারবে।
২.৩০ হল ব্যবহারের ক্ষেত্রে কোন সংগঠন কর্তৃক অশোভন বা অসহিষ্ণু মনোভাবের প্রকাশ ঘটালে পরবর্তিতে উক্ত সংগঠনের অনুকূলে হল বরাদ্দ বিরত রাখা হবে।

৩.মূল থিয়েটার এর ভাড়ার হার :

৩.১. মূল থিয়েটার হলে নিয়মিত নাটক মঞ্চায়নকারী সংগঠনকে, প্রতি মঞ্চায়নের জন্য জাতীয় আবৃত্তি, সংগীত, নৃত্য ও যাত্রা মঞ্চায়নকারী সংগঠনকে প্রতি শিফটের হল ভাড়া বাবদ ৫,০০০/- (পাঁচ হাজার) টাকা এবং নাটক ব্যতিরেকে অন্যান্য সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠান আয়োজনের ক্ষেত্রে সংশ্লিষ্ট সংগঠনকে প্রতি শিফ্টের হল ভাড়া বাবদ ২০,০০০/- (বিশ হাজার) টাকা প্রদান করতে হবে। ভাড়া গ্রহণকারী সংগঠনকে এর অতিরিক্ত হিসাবে প্রযোজ্য হারে ভ্যাট প্রদান করতে হবে।
৩.২. হল ব্যবহারের ক্ষেত্রে নিয়মিত নাটক মঞ্চায়নকারী সংগঠনকে অতিরিক্ত জামানত বাবদ ৩,০০০/- (তিন হাজার) টাকা এবং সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠান আয়োজনকারী অন্যান্য সংগঠনকে ৫,০০০/- (পাঁচ হাজার) টাকা বাংলাদেশ শিল্পকলা একাডেমি অনুকূলে জমা দিতে হবে।
৩.৩. নিয়মিতভাবে হল ব্যবহারকারী সংগঠনকে জামানতের নির্ধারিত টাকা একবার প্রদান করলেই চলবে। তবে জামানতের অর্থ সংশ্লিষ্ট সংগঠন কর্তৃক ফেরত নেয়া হলে উক্ত সংগঠনকে পূনরায় হল বরাদ্দ নেয়ার সময় জামানতের অর্থ জমা দিতে হবে।
৩.৪. জাতীয়ভাবে গুরুত্বপূর্ণ এমন বিশেষ ক্ষেত্রে একাডেমি মহাপরিচালক রেয়াতি হারে ভাড়া প্রদান অথবা ভাড়া মওকুফ করে হল ব্যবহারের অনুমতি দিতে পারবেন।

৪. আবেদনের নিয়মাবলী:

৪.১. মূল থিয়েটার হল ব্যবহারে আগ্রহী নাট্যগোষ্ঠী বা সাংস্কৃতিক সংগঠনকে নির্ধারিত সময়কালের মধ্যে হল ব্যবহারের অনুমতির জন্য নির্ধারিত ফরমে, বাংলাদেশ শিল্পকলা একাডেমি মহাপরিচালকের বরাবরে আবেদন করতে হবে।
৪.২. মূল হল বরাদ্দ পাওয়ার ক্ষেত্রে পূর্বের মাসের ৭ তারিখের মধ্যে আবেদন জমা দিতে হবে
৪.৩. একবার জমা দেয়া আবেদন পত্রে একাডেমি অনুমতি ব্যতিরেকে কোনরূপ পরিবর্তন বা সংযোজন বা বিয়োজন করা যাবেনা।
৪.৪. সংগঠন কর্তৃক নির্ধারিত ফরমে হল বরাদ্দের আবেদনের প্রেক্ষিতে, হল বরাদ্দ কমিটির সুপারিশের উপর মহাপরিচালকের সম্মতি গ্রহণপূর্বক বাংলাদেশ শিল্পকলা একাডেমি নাট্যকলা ও চলচ্চিত্র বিষয়ক বিভাগ হল ব্যবহারের প্রাথমিক বরাদ্দপত্র প্রদান করবে। প্রয়োজনে মহাপরিচালক এককভাবেও হল বরাদ্দ দিতে পারবেন।
৪.৫. প্রাথমিক বরাদ্দপত্র প্রাপ্তির সাত দিনের মধ্যে আবেদনকারী সংগঠনকে অফিস চলাকালীন সময়ে হল ভাড়া বাবদ নির্ধারিত অর্থ, প্রযোজ্য ভ্যাট এবং জামানত বাবদ দেয় অর্থ বাংলাদেশ শিল্পকলা একাডেমি অনুকূলে পৃথক পৃথক পে-অর্ডারের মাধ্যমে অথবা নগদ অর্থে একাডেমি হিসাব বিভাগে জমা দিতে হবে। নির্ধারিত সময়ের মধ্যে নির্ধারিত অর্থ জমা দিতে ব্যর্থ হলে, হলের প্রাথমিক বরাদ্দপ্রাপ্ত সংগঠনের অনুকূলে হল সংরক্ষণের নিশ্চয়তা থাকবেনা। জামানত বাবদ অর্থ একবার দেয়া হলে তা ফেরত না দেয়া পর্যন্ত একই সংগঠনকে পূনরায় জামানতের অর্থ দিতে হবে না।
৪.৬. নির্ধারিত সময়ের মধ্যে ভ্যাটসহ হলের ভাড়া ও প্রযোজ্য ক্ষেত্রে জামানতের অর্থ প্রাপ্তির পর একাডেমি নাট্যকলা ও চলচ্চিত্র বিষয়ক বিভাগ থেকে সংশ্লিষ্ট সংগঠনকে 'মূল থিয়েটার হল' ব্যবহারের জন্য চূড়ান্ত অনুমতিপত্র প্রদান করা হবে।
৪.৭. চূড়ান্ত অনুমতিপত্র না পাওয়া পর্যন্ত আবেদনকারী সংগঠন হল ব্যবহার করতে পারবে না।
৪.৮. ভাড়া গ্রহণকারী সংগঠন হল বরাদ্দের নির্ধারিত তারিখের কমপক্ষে ৭(সাত) দিন পূর্বে হল বরাদ্দের তারিখ পরিবর্তনের আবেদন জানালে হল খালি থাকা বা হওয়া সাপেক্ষে তারিখ পরিবর্তন করা যেতে পারে।
৪৯. চূড়ান্ত অনুমতিপত্র পাবার পর কোন কারণে হল গ্রহীতা, হল বরাদ্দের নির্ধারিত তারিখের তিনদিন পূর্বে বরাদ্দ বাতিল করার আবেদন জানালে ভাড়ার ১০%, দুই দিন পূর্বে আবেদন জানালে ভাড়ার ২৫% ও এক দিন পূর্বে জানালে ৭৫% অর্থ কর্তন এবং হল বরাদ্দের নির্ধারিত তারিখে জানালে জমা দেয়া অর্থের সম্পূর্ণই বাজেয়াপ্ত হবে।
৪.১০. এক সংগঠনের নামে বরাদ্দকৃত হল অন্য সংগঠন ব্যবহার করতে পারবে না।
৪.১১. হল ভাড়া গ্রহণকারীর এখতিয়ার বহির্ভূত কোন দৈব-দূর্বিপাক, রাজনৈতিক বা সামাজিক অচলাবস্থা ইত্যাদি কারণে নির্ধারিত দিন ও সময়ে নাটক মঞ্চায়ন বা অনুষ্ঠান পরিবেশন করা সম্ভবপর না হলে ভাড়া গ্রহীতা সংগঠনকে তার প্রদত্ত ভাড়া ফেরত প্রদান অথবা ভাড়া গ্রহীতার আবেদন অনুযায়ী হল খালি থাকা সাপেক্ষে অন্য কোন দিন হল বরাদ্দ করা যেতে পারে।
৪.১২. হল ভাড়া গ্রহণকারী কর্তৃক হল বা একাডেমি কোন অংশের বা কোন কিছুর ক্ষতিসাধিত না হলে ভাড়া গ্রহণকারী কর্তৃক উক্ত জামানতের অর্থ ফেরত প্রদানের আবেদনের ৭(সাত) কার্যদিবসের মধ্যে জামানতের অর্থ ফেরত দেয়া হবে।
৪.১৩. ভাড়া গ্রহণকারী সংগঠনের নিজস্ব সেট, প্রপ্স্ ও কস্টিউম ভিন্ন বিশেষ প্রয়োজনে অন্য কোন জিনিস থিয়েটার হলের অভ্যন্তরে নিতে হলে শিল্পকলা একাডেমি নাট্যকলা ও চলচ্চিত্র বিষয়ক বিভাগের অনুমতি গ্রহণ করতে হবে এবং নাটক মঞ্চায়ন/ অনুষ্ঠান শেষে ঐসব জিনিস জাতীয় নাট্যশালার বাইরে নেবার সময় কর্তৃপক্ষ কর্তৃক দেয় গেট পাশের প্রয়োজন হবে।
৪.১৫. এই নীতিমালায় প্রাথমিক হল বরাদ্দ প্রাপ্তির আবেদনের দিন থেকে কার্যকর হবে।

৫. এই নীতিমালায় বিধৃত হয়নি, অথচ তা প্রয়োজনীয়, এমন কিছু পরে উদ্ঘাটিত হলে, তা এই নীতিমালায় একাডেমি পরিষদের অনুমোদনক্রমে সংযোজন করা যাবে।
৬. একাডেমি অথবা রাষ্ট্রীয় প্রয়োজনে যে কোন সময় বরাদ্দ বাতিল করার ক্ষমতা একাডেমি কর্তৃপক্ষ সংরক্ষণ করে। সে ক্ষেত্রে আয়োজক প্রতিষ্ঠান জমাকৃত সকল অর্থ ফেরৎ পাবেন।

হল বুকিং

মঞ্চায়িতব্য প্রযোজনার ধরণঃ
[ সংশ্লিষ্ট ঘরে টিক চিহ্ন দিতে হবে]
প্রার্থীত মঞ্চায়ন তারিখঃ

হল ব্যবহারের সময়ঃ
[ সংশ্লিষ্ট ঘরে টিক চিহ্ন দিতে হবে]