মহাপরিচালক

লিয়াকত আলী লাকী ১৩ জানুয়ারি ১৯৫৭ সালে জন্মগ্রহণ করেছেন। তার পিতার নাম শেখ সাদেক আলী এবং মাতার নাম মাজেদা বেগম। তিনি ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় থেকে ইংরেজী সাহিত্যে স্নাতক (সম্মান) ও স্নাতকোত্তর ডিগ্রী অর্জন করেছেন। এছাড়া ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় থেকে গ্রন্থাগার বিজ্ঞানে ডিপ্লোমা, বুলবুল ললিতকলা একাডেমি থেকে উচ্চাঙ্গ সঙ্গীতে ৫ বছরের সার্টিফিকেট কোর্স, জাপান দূতাবাস থেকে এক বছরের জাপানী ভাষা কোর্স করেছেন। তিনি একাধারে নাট্যাভিনেতা, নাট্য নির্দেশক, সঙ্গীত শিল্পী, সুরকার ও সাংস্কৃতিক সংগঠক। তার অভিনীত নাটকের সংখ্যা ৫৮টি, নির্দেশিত নাটকের সংখ্যা ৮২টি, নাটক রচনা, রূপান্তর ও নাট্যরূপ-৮টি। দেশে ও বিদেশে অংশগ্রহণ ও পরিচালনা করেছেন অসংখ্য থিয়েটার বিষয়ক উৎসব, সিম্পোজিয়াম, সেমিনার ও ওয়ার্কশপে । সংস্কৃতির ক্ষেত্রে গুরুত্বপূর্ণ অবদান রাখার জন্য ১৯৮৪ সালে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় স্বর্ণপদক, শ্রেষ্ঠ শিশু সংগঠক হিসেবে কলকাতা থেকে 'সমলয়' পুরস্কার, পশ্চিমবঙ্গের বাংলার মুখ সংগঠন কর্তৃক প্রদত্ত দুই বাংলার শ্রেষ্ঠ অভিনেতা (বাংলাদেশ)-র জন্য 'বাংলার মুখ' পুরস্কার, জাপানের তইয়ামা'র গভর্ণর কর্তৃক প্রদত্ত সম্মাননা : Honorary Cultural Envoy of Japan গ্রহণ (২০০৪), সংস্কৃতির ক্ষেত্রে বিশেষ অবদানের জন্য ইউনিক গ্রুপ স্বর্ণপদক (২০০০), বাংলাদেশের প্রায় অর্ধশত শিশু সংগঠন কর্তৃক 'শিশুবন্ধু' ও 'শ্রেষ্ঠ শিশু সংগঠক' পদক, আসিটেজ কর্তৃক 'আর্টিস্টিক এক্সেলেন্স ফর চিলড্রেন এন্ড ইয়ুথ থিয়েটার ২০১১, মুনীর চৌধুরী পদক ২০১৩, কবি মাহবুব উল আলম চৌধুরী সম্মাননা (২০১৫), খেলাঘর আসর কর্তৃক সাংবাদিক বজলুর রহমান ভাইয়া স্মৃতি পদক ২০১৫ অর্জন করেছেন। লিয়াকত আলী লাকী'র সাংগঠনিক অভিজ্ঞতা ও পরিচয়ের মধ্যে রয়েছে বাংলাদেশ গ্রুপ থিয়েটার ফেডারেশান এর চেয়ারম্যান, পিপল্স থিয়েটার এসোসিয়েশনের প্রতিষ্ঠাতা সেক্রেটারী জেনারেল, লোক নাট্যদলের প্রতিষ্ঠাতা ও অধিকর্তা, সম্মিলিত সাংস্কৃতিক জোটের অন্যতম প্রতিষ্ঠাতা ও বর্তমান সহ-সভাপতি, আই টি আই বাংলাদেশ কেন্দ্রের নির্বাহী কমিটির সদস্য, ইন্টারন্যাশনাল এ্যামেচার থিয়েটার এসোসিয়েশন এর এশিয়ান রিজিওনাল কমিটির সভাপতি ও কেন্দ্রিয় চিলড্রেন এ্যান্ড ইয়ুথ স্টান্ডিং কমিটির সদস্য।